ক্যারিয়ারবইরিভিউস্কিল ডেভলপমেন্ট

ভাইরে আপুরে -বই রিভিউ

পূর্বকথা :

বইটির লেখক শাব্বির আহসান স্যার লেখাপড়া করেছেন ঝিনাইদহ ক্যাডেট কলেজ, বুয়েট আর আইবিএ- তে।সেনাবাহিনীতে ছিলেন। Gulf War এ অংশগ্রহণ করেছেন।কঙ্গোতে পিসকিপার হিসেবেও কাজ করেছেন। অবসর গ্রহণের পর কর্পোরেট দুনিয়ায় ছিলেন বেশ কিছু দিন।কাজ করেছেন বিশ্বব্যাংকের একটি প্রজেক্টের পরামর্শক হিসেবে। ঘুরেছেন পৃথিবীর নানান দেশে আর পড়ে ফেলেছেন একগাদা বই! 
বাস্তব জীবনে দারুণ অসাধারণ আর প্রাণবন্ত একজন মানুষ তিনি। এই ৫৫ বছর বয়সেও তিনি একদম ছোট্ট বাচ্চাদের মতো প্রাণ-প্রাচুর্যে ভরপুর। তাকে আঙ্কেল ডাকলে রীতিমতো অ্যাঙ্গরি রিয়েক্ট দিয়ে ভাসিয়ে দেন সমস্ত ফেসবুক নোটিফিকেশন বক্স!ব্যাপারটা কিউট !এক জীবনে যতগুলো অসাধারণ মানুষদের সাথে কথা বলার সুযোগ হয়েছে আমার, তিনি তার মধ্যে একজন।

সে যাই হোক, তার সমস্ত জীবনের অসংখ্য অভিজ্ঞতার অংশবিশেষ নিয়ে এই বইটা লেখা। স্কুল,  কলেজ, ইউনিভার্সিটি পড়ুয়া বা সদ্য পাস করে যাওয়া তরুণ – তরুণীদের সাথে নিজের অভিজ্ঞতা, সাফল্য আর ব্যর্থতার গল্প ছড়িয়ে দেয়ার উদ্দেশ্যেই এই বইটার সৃষ্টি হয়েছে।

কি আছে বইটিতে?  :

একজন মানুষের জীবনকে অসাধারণ, সফল এবং কর্মময় করে তোলার জন্য যা কিছু করা লাগে,  যত প্রয়োজনীয় গাইড লাইন দরকার, তার সবকিছু আছে এই এক বইটির মাঝে।
চারিদিকে অনেক রকমের হতাশায় ভরপুর মানুষ দেখি আমি। তাদের জীবন হিনমন্যতায় ভরপুর। নিজের ওপর ভীষন রকমের হতাশ ওরা। তারা ভাবে ভালো ছাত্র হতে না পারলে কিংবা পকেট ভর্তি টাকা না থাকলে হয়তো কিছুই করা যায় না এ জীবনে!
অথচ কি ভীষণ একটা ভুল ধারণা নিয়ে বেঁচে আছে ওরা!  আমার ভাবতেই অবাক লাগে খুব। আসলে মানুষতো বড় হয় তার পরিশ্রম, দক্ষতা আর পজিটিভিটির কারণে! টাকা – পয়সা কিংবা ভালো ছাত্র – এসব তো নিতান্ত তুচ্ছ বিষয়।

সে যাই হোক, জীবন নিয়ে ভীষনরকমের হতাশ কিংবা কিছু করতে চায় এমন মানুষদের এ বইটা অবশ্যই পড়া দরকার।

১২৮ পৃষ্ঠার এ বইটিকে আমার রীতিমতো একটা মূল্যবান সম্পদের খনি মনে হয়েছে।এখানে  আছে নানান রকম স্টেপ বাই স্টেপ ট্রিক্স,কিছু মূল্যবান টিপ্স,১৮ বছর বয়সে ফিরে গেলে তিনি করতেন- তার বিস্তারিত বর্ননা ( এটা কিন্তু আমাদের জন্য খুব কাজে লাগবে,কারন এখানে আমি খুঁজে পেয়েছি একগাদা মূল্যবান পথনির্দেশনা কিংবা বুদ্ধি), নামকরা পাবলিকে যারা চ্যান্স পায় নি এবং তার জন্য খুব হতাশ, তাদের জন্য আছে বেশ কিছু দরকারি মোটিভেশন, English speaking এর খুঁটিনাটি, vocabulary র সাতকাহন, মনে মনে অংক করার মজার ট্রিক্স, সকল সমস্যার সমাধানের উপায়,বয়স  ২৫ পেরোনোর আগেই যা করে ফেলা দরকার- তার খুঁটিনাটি, নেটওয়ার্কিং এর প্রেকটিক্যাল টিপ্স, ইংরেজী লেখার পদ্ধতি, Ms excell শেখার উপকারিতা , প্যারেন্টিং এর কিছু পথনির্দেশনা ( এটা জোস) , ভর্তি পরীক্ষার খুঁটিনাটি ( এটা লিখার জন্য তিনি দু’মাস রিসার্চ করেছেন আর কথা বলেছেন প্রায় শ’খানেক বাচ্চা কাচ্চার সাথে)! 
ন্যাশনালে পড়া হতাশ মানুষদের জন্যও আছে নানান মোটিভেশন, আছে ভোকেশনাল ট্রেনিং এর গল্প, ১০০ টা খুব দরকারী নন ফিকশন বইয়ের লিস্ট, একটা মজার স্কুলের গল্প, নতুন ভাষা সহজেই শিখে ফেলার উপায়, প্রোডাক্টিভ ফেসবুকিং এবং জীবন, পরজয় থেকে শিক্ষা নেয়ার উপায়, ১০০ দিনের প্ল্যান,পড়াশোনা করার ইফেক্টিভ উপায় ( এটা খুব কাজের) , ইউনিভার্সিটি লাইফকে বেস্ট কিছু করে ফেলার নানান পরামর্শ, হেটার্সকে কাজে লাগানোর মজার উপায় এবং আরও অনেক কিছু! 

সহজ কথায় বলতে গেলে জীবন বদলে দেয়ার মতো একটা বই এটা! 

বইটি সম্পর্কে আমার অনুভূতি : আমি রীতিমতো মুগ্ধ এই বইটা পড়ে! স্টুডেন্টদের জন্য এটা সত্যিই খুব দরকারী আর অবশ্যপাঠ্য একটা বই। স্টুডেন্ট হ্যাকস আর ভাল্লাগেনা বইটার পাশাপাশি আমি সবাইকে এই বইটাও পড়ার পরামর্শ দিবো! 

সবচেয়ে বেশী ভালো লেগেছে যে প্রবন্ধগুলো , তার নাম :

১. Be inhuman.
২. Think like a CEO.
৩.Use your haters.
৪.ইউনিভার্সিটি লাইফে কি কি করবেন।
৫. পরাজয়ে ডরে না বীর!
৬.হঠাৎ করেই যদি মারা যাই?
৭.একটা মজার স্কুল।
৮.ইসস, যদি ২৯ বছর হইতাম! 

ভালো লাগা কিছু লাইন :

১. Be the best, ever.
২.life is awesome! Build, love and enjoy it! 
৩.life is awesome! work super duper extremely hard to build and polish it and enjoy the color it brings you! 
And do not ever blaspheme by doubting your abilities. 
৪.train your awesome brain!  say no to drugs and no to calculator!
৫.এই বুড়া বয়সে আমি পারলে আপনে না ক্যান?  what excuse  do you have?
৬. Don’t joke with your future, else the whole world will joke with you. 
৭.you are better than you know it, and you can be the best at something you want to be.
৮.Man – it’s your life. build it and be proud of it.
৯. turn your addiction to a source of improvement.
can you? 
১০.just 30 minutes a day – a bold, brave, smart, awesome YoU!
১১.বাংলাদেশের ছেলে মেয়েরা অনেক বুদ্ধিমান। তাদের শুধু দরকার একটু গাইডলাইন, একটু spark! 

বইয়ের নাম : ভাইরে / আপুরে!!!

লেখা : শাব্বির আহসান।

Neela Moni Goshwami

জন্ম ২৭ ডিসেম্বর , ১৯৯৬, কুমিল্লা। ভীষন হাসিখুশী আর খানিকটা পাগল টাইপের এই মেয়েটা স্বপ্ন দেখতে ভালোবাসে খুব। তার প্রিয় শখ বই পড়া, লেখালেখি করা আর ছবি আঁকা এবং প্রিয় স্বপ্ন নিজের লেখা একগাদা বই হাতে নিয়ে ঘুরে বেড়ানো! ভবিষ্যতে সে একজন সত্যিকারের ভালো লেখিকা হতে চায়। আর কাজ করতে চায় সুবিধাবঞ্চিত শিশু আর আশ্রয়হীন বৃদ্ধদের জন্য। বর্তমানে সে ন্যাশনাল কলেজ অফ হোম ইকোনমিক্স থেকে শিশু বিকাশ ও সামাজিক সম্পর্ক বিভাগে চতুর্থ বর্ষে পড়াশোনা করছে। লেখিকার " তাকে ভালোবেসে ", " কঙ্কাল সরোবর " এবং " এটিকুয়েটা " নামে তিনটি বই আছে।।তাছাড়া তিনি " রাইটার্স ক্ল্যাব বিডি " প্রজেক্টটির ফাউন্ডার।

এই রকম আরো পোস্ট

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close