রিভিউ

নজরুলের উপন্যাস

বইঃ নজরুলেরউপন্যাস সমগ্র

রিভিউঃ রুদ্র ফারাবী

অনেকের কাছে বিস্ময়কর মনে হলেও কবি হিসেবে সমধিক পরিচিত আমাদের জাতীয় ও বিদ্রোহী কবি কাজী নজরুল ইসলামের সাহিত্যে আবির্ভাব গদ্য রচয়িতা হিসেবে।বাঁধন-হারা, মৃত্যুক্ষুধা ও কুহেলিকা—নজরুলের মোট এ তিনটি উপন্যাস। বাংলা সাহিত্যের প্রথম পত্রোপন্যাস ‘বাঁধন-হারা।বাঁধন-হারা উপন্যাসের বাঁধন অনেকটা শিথিল উপন্যাসের মতো। চরিত্রে হয়তো কোনো মহত্ শিল্পের রেখাপথ ধরে নির্দিষ্ট পথে পৌঁছার চেষ্টা নেই। অজস্র কথার ভিড়ে, বর্ণনার বাহুল্যে এক-একটি ব্যক্তিত্বের অস্পষ্ট গুঞ্জনমাত্র শোনা যায়। তাতে উপন্যাসের রস আস্বাদনে কোনো ব্যাঘাত বা ব্যত্যয় ঘটে না। অন্যান্য চরিত্র অস্পষ্ট ও স্বাতন্ত্র্যবর্জিত হলেও কোনো কোনো চরিত্রের টানাপড়েন, বিশেষ করে নায়ক ও তার প্রেমিকার, আমাদের ভাবায় ও কাঁদায়। ঔপন্যাসিকের আন্তরিকতায় উপন্যাসের পরিণতি আমাদের মন ছুঁয়ে যায়।নজরুল যে ক’টি উপন্যাস রচনা করেছেন, তার মধ্যে শিল্পাঙ্গিক ও জীবনবোধের সফলতায় মৃত্যুক্ষুধা শ্রেষ্ঠ উপন্যাস। পশ্চিমবঙ্গে কৃষ্ণনগরের চাঁদ সড়কের নিম্নশ্রেণীর দরিদ্র হিন্দু, মুসলমান ও খ্রিস্টান সম্পদায়ের দারিদ্র্য ও দুঃখভরা জীবন নিয়ে উপন্যাসের কাহিনী গড়ে উঠেছে। তাদের একদিকে মৃত্যু আর একদিকে ক্ষুধা। সেখান থেকেই উপন্যাসের নামকরণ মৃত্যুক্ষুধা। তারা অভাবের কারণে ছোটখাটো ব্যাপার নিয়ে ঝগড়া করে। আবার পরস্পরের দুঃখে একে অপরের পাশে এসে দাঁড়ায়। নজরুলের উপন্যাস-চিন্তার সর্বশেষ ভাষ্য ‘কুহেলিকা’।এ উপন্যাসে সে যুগের যুব-মানসের রক্তচাঞ্চল্য অনুভব করা যায়। উপন্যাসের রূপকর্ম সম্পর্কে বলা যায়, ‘কুহেলিকা’ সাময়িক উপন্যাসের গোত্রভুক্ত হলেও কাহিনী পরিচর্যায় লেখকের মুনশিয়ানা রয়েছে। ভাষা এখানে যেমন ব্যঙ্গ, হাস্যরস ও প্রাণের স্পর্শে জেগে উঠেছে, তেমনি বর্ণনারীতিতেও একটি মিথ-কথনের প্রয়াস দেখি। কবিত্বময় ভাষা এখানে স্বাস্থ্য আর লাবণ্যে বেশ দ্যুতিময়।মাত্র তিনটি উপন্যাস রচনা করলেও নজরুলের উপন্যাস সমাজের, দেশের, মাটির ও মানুষের কাছাকাছি—বিশেষ করে মৃত্যুক্ষুধা উপন্যাস। কাহিনী বৈচিত্র্য, ভাষা ও রচনাশৈলীতে নজরুলের উপন্যাসগুলো অসাধারণ। নিঃসন্দেহে নজরুল সমাজ-সচেতন, ইতিহাস-সচেতন, দেশপ্রেমিক, দরদি ও কুশলী ঔপন্যাসিক। নজরুলের উপন্যাসের আরও জোরদার পঠন, পাঠন ও এসবের ওপর গবেষণা অপরিহার্য।

টপিকঃ

Rudro Farabi

আমি একজন পাঠক

এই রকম আরো পোস্ট

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close