সত্য ঘটনা

কৌতূহলী পোগার্ট

ছোটবেলার কথা মনে পড়ে? যখন মা দুপুরে খাওয়ার পর ভাত ঘুম দিত আর তোমাকেও জোর করতো ঘুমাতে। কিন্তু তুমি ছিলে মহাচালাক! মায়ের চোখ লেগে আসতেই উঠে পড়তে বাইরে খেলতে যাবে বলে। সেখানেও বিপত্তি ছোট্ট তুমি কিন্তু অতো উঁচুতে লাগানো ছিটকিনির নাগাল পেতে না! অগত্যা মন খারাপ করে জানালার গ্রিল ধরে অসহায় চোখে বাইরের পথচারীদের দেখতে আর ভাবতে ওরা কত্ত স্বাধীন আর তুমি কী না ঘরবন্দী! অনেকটা এমন অবস্থাতেই পড়েছে পোগার্ট। পোগার্ট হচ্ছে সুদূর ডেনমার্কের পোষা এক কুকুরছানা। যার মালকিন এক মধ্যবয়স্ক মহিলা, নাম র‍্যানভেইগ ( Ranveig  Bjorklid Levinsen)।

র‍্যানভেইগের বাড়িতে মোট দুটো কুকুর পোগার্ট আর তার মা উইনস্টোন ( ছেলেদের নাম নিতে সে নাকি আপত্তি করেনি)। এই ছোট্ট পোগার্ট বেশ কৌতূহলী! বাড়ির পাশের রাস্তা দিয়ে চলাচল করা মানুষজন দেখতে সে ভীষণ আগ্রহী। তাই মিসেস র‍্যানভেইগ এমন বুদ্ধি বের করলেন যেন বাড়ির চারপাশে ঘিরে দেওয়া বেড়া টপকে লাফিয়ে বের হয়ে না যায় পোগার্ট, পথচারী দেখবার আশায়! তিনি বেড়া কেটে ছোট ছোট গোল গর্ত বানিয়ে দিলেন যেন পোগার্ট গর্ততে মাথা গলিয়ে বাইরেটা দেখতে পায়। আর হলোও তাই, অন্যদিকে র‍্যানভেইগের কন্যা বেড়ার বাইরের দিকে রং দিয়ে অদ্ভুত পোশাকের মতো এঁকে দিল। এতে করে পোগার্ট যখন সেই গর্ততে মাথা ঢুকিয়ে বাইরে দেখে তখন তাকে হাবাগোবা এক কৌতূহলী শিশুর মতো দেখায়! ঠিক এরকম একটা ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়াতে দেয়া হয় আর মুহূর্তেই সেখানে হাজার হাজার শেয়ার লাইক পড়তে থাকে। সবার তো একটাই কথা, কৌতূহলী চোখে তাকিয়ে থাকা এই কুকুরছানাটা যেন রাস্তার রাজা ( The king of road)! 

জেবা তাহসিন

এই রকম আরো পোস্ট

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close